1. news@dainikchattogramerkhabor.com : Admin Admin : Admin Admin
  2. info@dainikchattogramerkhabor.com : admin :
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
“হযরত ওসমান (রাঃ)” রচনায়ঃ মোহাম্মদ আব্দুল হাকিম (খাজা হাবীব ) অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা খানের সাথে আসফ নেতৃবৃন্দের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় “নববর্ষের চেতনা” রচনায়ঃ মোহাম্মদ আব্দুল হাকিম (খাজা হাবীব ) সিলেটে ঈদ উপহার দিলেন মনচন্দ্র সুশীলা, বিমান পটু ও রেনুপ্রভা প্রিয়রঞ্জন ফাউন্ডেশন বটতল ফাউন্ডেশন এর উপদেষ্টা ও কার্যকরী কমিটির পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা মাইজভান্ডারি সূর্যগিরি আশ্রম শাখার উদ্যোগে ঈদ বস্ত্র-সামগ্রী প্রদান “বাঁকা চাঁদের হাসি” রচনায়ঃ মোহাম্মদ আব্দুল হাকিম (খাজা হাবীব ) পটিয়া বিভিন্ন ইউনিয়নে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা তসলিম উদ্দীন রানা সিলেটে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন সিলেট চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশন “ঈদুল ফিতর” রচনায়ঃ মোহাম্মদ আব্দুল হাকিম (খাজা হাবীব)

এক সপ্তাহে, এক কোটি ডোজ টিকা দেওয়ার টার্গেট। আগামী ৭ থেকে ১৪ আগষ্ট, দেশজুড়ে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে 

  • সময় মঙ্গলবার, ৩ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৫৩ পঠিত

করোনার টিকা দিয়ে আসলে কি কিছু হয়? মানুষ তো মরছে দ্বিগুন আগের তুলনায়, কই করোনার টিকা তো বাঁচাতে এলো না। যারা টিকা নিয়েছে তারাও তো আক্রান্ত হচ্ছে তাহলে লাভ টা কি হলো। হুদাই লাফালাফি টিকা নিয়া তাই না।

প্রথম দিকে যখন টিকা এলো তখন এই কথাবার্তা গুলো ছিলো মানুষের মুখে মুখে। কিন্তু এখন আর কারোই অজানা নয় টিকায় কি হয়। এবং তার প্রমাণ এ পর্যন্ত কত মানুষ টিকা নিয়েছে এবং কত নিবন্ধন করেছে তার সংখ্যাটা অনুধাবন করলেই বুঝা যায় ।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশের মানুষের জন্য ২১ কোটি টিকার ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং তা যেন সর্বস্তরের মানুষ সঠিকভাবে পায় তার জন্য বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। এখন গ্রাম পর্যায়ের মানুষ নিবন্ধন ছাড়াই টিকা পেতে যাচ্ছে , ১৮ বছরের ছেলে মেয়েরাও নিবন্ধনের আওতাভুক্ত হচ্ছে।

আগামী ৭ থেকে ১৪ আগস্ট এক সপ্তাহে দেশজুড়ে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়সহ বিশেষ কর্মসূচির মাধ্যমে কমপক্ষে এক কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হবে। এ কর্মসূচিতে বয়স্করা অগ্রাধিকার পাবেন। বেশি মানুষকে টিকার সুবিধা দিতে নিবন্ধন না করে শুধু এনআইডি নিয়ে গিয়েও টিকা নেওয়া যাবে। তবে যাঁদের এনআইডি নেই, তাঁদের জন্যও অন্য ব্যবস্থা রাখা হবে।

সরকার সামগ্রীকভাবে বর্তমানে করোনা প্রতিরোধের জন্য টিকাকে সর্বাধিক প্রায়োরিটি দিচ্ছে যাতে আমরা আবার করোনার দূর্দিন কাটিয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরত যেতে পারি। কিন্তু আমাদেরও এক্ষেত্রে অনেক কিছু করার আছে। ভ্যাক্সিন একা কিছুই করতে পারবে না। করোনা প্রতিরোধ শুধু আল্লাহর রহমতে আমরাই প্রতিরোধ করতে পারবো আর তা হলো স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউনের বিধি নিষেধ মেনে চলার মাধ্যমে। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে যেন আমাদের ভুলের খেসারত না দিতে হয় সে ব্যাপারটা একটু মাথায় রাখবেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
ওয়েবসাইট ডিজাইন: ইয়োলো হোস্ট