1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Admin Admin : Admin Admin
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বসতঘরে অনধিকার প্রবেশ করে প্রতিবন্ধীদের উপর অতর্কিত হামলা বিএফএসএফ প্রতিষ্ঠাতা আবু জাফরকে হত্যার হুমকির ঘটনায় থানায় জিডি মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি ফাউন্ডেশনের জরুরী সাংগঠনিক সভা অনুষ্ঠিত ক্ষুদি রামের জন্মদিনে বিনম্র চিত্রে স্মরণ করি এই মহান বীরকে। মেহেদী হাসান রাফি SSC তে গোল্ডেন A+ পেয়েছে ফটিকছড়ির শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠন হিসেবে স্বীকৃতি পেল এস এম সি আদর্শ সংঘ। প্রধানমন্ত্রী’র জনসভা সফল করার লক্ষ্যে চন্দনাইশ উপজেলা ছাত্রলীগের প্রস্তুতি সভা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে পটিয়ায় বদিউল আলমের নেতৃত্বে আনন্দ শোভাযাত্রা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা নাঈম আশরাফ অভি’কে সংবর্ধনা অপ্রধান শস্য উৎপাদন ও সংরক্ষণ বিষয়ক প্রযুক্তিগত কলা কৌশল ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচি সম্পন্ন।

“লকডাউনে প্রেম” তরুণ আত্মহত্যার প্রবণতা আশঙ্কাজনক বৃদ্ধি নেপথ্যে প্রযুক্তির অপব্যবহার! -নেছার আহমেদ খান

  • সময় বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ১৩৯ পঠিত

ইদানীং আামাদের তরুণ সমাজের মাঝে আমি একটা জিনিশ বেশি লক্ষ করছি ভালোবাসা প্রেম প্রণয় অতঃপর আত্নহত্যা। নাহয় জীবনকে মৃত্যুর দিকে ছুড়ে দেওয়া, যেন মনে হচ্ছে তার প্রেম নামক ভালোবাসাই ছিলো তার জীবনের মূলমন্ত্র।

.
হে আমার তরুণ ভাই আবেগ প্রেম তো জীবন অন্ধকার, এ-ই আবেগময় কল্পনার ভিতর থেকে বেরিয়ে এসে একটিবার আামাদের চারপাশ এবং নিজের পরিবারের বিষয়টা একটু ভাবুন। আজ থেকে পিছনের ১৮ বছর ধরে আপনাকে তারা ভালোবেসে চলছে, তদের জন্য আপনি কি করেছেন বা কি করলেন। আজ করোনার মহামারী কারণে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কোচিং সেন্টার সহ বন্ধ। তাহলে একবার চিন্তা করে দেখ তোমার সাথে শপিং মল, পার্কে ও বিভিন্ন নামীদামি রেঁস্তোরায় আড্ডা দিবার জন্য মেয়েটা মা বাবাকে কি বলে বাসা থেকে বাহির হল। নিশ্চিত তোমার সাথে দেখা করার জন্য মেয়েটা মা বাবাকে যে কোন একটা মিথ্যা অজুহাতের কারণ বলে বাসা থেকে বাহির হল।
মনে রাখিও, যেসব লকডাউনে মেয়ে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় মা বাবাকে মিথ্যা অজুহাত দেখাইয়া বাসা থেকে বাহির হচ্ছে তাহলে তোমাকে বুঝতে হবে এই মেয়ে তোমার ভবিষ্যত জীবনে কি উপকার আসবে?
কোথাকার কোন বাপের মেয়ের সাথে ২-১ বছর একটু আত্মতৃপ্তির সময় কাটিয়েছেন, বিভিন্ন শপিং, পার্কে অথবা ভালোবাসার সাথে কিছু সস্তা আবেগ বিলিয়েছেন তার জন্য এখন আপনার জীবনকে নষ্ট করছেন বা মৃত্যুপথে ছেড়ে দিচ্ছেন। একটা বার চিন্তা করলে নিজের জন্মদাতা প্রিয় মা-বাবার কথা ? যাঁরা তিতে তিতে কষ্ট করে বড়ো করেছে তোমাকে?
. হে আমার তরুণ ভাই মানলাম সে আপনাকে অনেক অনেক ভালোবাসতো তবে একটিবার কি এইটা ভেবে দেখেছেন যে এত ভালোবাসার পরেও কেন সে ছেড়ে গেলো? কই আপনার পরিবার তো আপনাকে একটিবারের জন্যও ছেড়ে দেয়নি বা কল্পনাও করে নি। কারণ আপনার পরিবার আপনাকে সত্যিই ভালোবাসে, ঐসব সস্তা আবেগময় ভালোবাসার মতো তাদের ভালোবাসা না। তারা আপনাকে সেই ছোট থেকে আজ পর্যন্ত ঠিক একই রকম ভালোবাসা দিয়ে যাচ্ছে।
.
হে আমার তরুণ ভাই, তাই আজথেকে কিছুটা ভেবে তারপর সিদ্ধান্ত নিবেন তাদের ভালোবাসার জন্য আপনি কি করলেন বা করবেন ? এই লকডাউনে দিন রাত সারাক্ষণ নিজের পছন্দের ভালোবাসার মানুষটার সাথে ফেসবুক অনলাইনেে ঘন্টা পর ঘন্টা সময় দিলেন। কোথাকার কোন সুন্দরী কবিতা র জন্য আপনার সুন্দর ভবিষ্যতকে নিজের হাতে গলাটিপে হত্যা করলেন অথবা কেউ কেউ জীবনকেই আত্মহত্যায় বিলিয়ে দিচ্ছেন। যদি ভালোবাসার কারণে জীবনে দিতে হয় তবে পরিবারের জন্য দিন, নিজের জন্য দিন। এইসব তথাকথিত সস্তা প্রেমের জন্য নয়, আগে নিজের Career নিজে সামাজিক ভাবে সৃষ্টি কর দেখবে একদিন ভালো একটা মেয়ে আপনার জীবন সঙ্গী হয়ে সামনে ভবিষ্যত আরো আলোকিত করে দেবে। কারণ আপনার জীবনে সঞ্চয় বা জমা বলতে একটা অংশভাগ রাখুন।
.আমরা অনেকই বলি,ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির Smart Phone কারণে তরুণ তরুণী জীবন নষ্ট হয়ে গেছে। আমি কিন্তু সে মনগড়া কথাটা একেবারেই মানতে রাজি না। তথ্য প্রযুক্তির মোবাইল ব্যবহার মধ্যে ভালো খারাপ দুটা দর্শন আছে। এখন আপনার মনমানসিকতা ভালো মন্দ দুটায় তথ্য প্রযুক্তির দর্শনে মধ্যে কোনো টা? ২৪ ঘন্টা মোটা ফোনে থাকবেন সেইটা? আপনার সুন্দর চোখে দৃষ্টিভঙ্গি ও সুন্দর মনে বিচার করে নিবন্ধন করে নিবেন আপনার বিবেক বিবেচনা নিজই উত্তর পেয়ে যাবেন। শুধু শুধু তারুণ্যের কোমলমতি ও শৈশব জীবন নষ্ট করার পিছনে তথ্য প্রযুক্তি মোবাইলে ফোনে দোষ দিয়ে ভালো নেই। আমি এটাও মনে করি, ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির Smart Phone আপনার অন্ধকার জীবন থেকে সুন্দর মনে চরিত্র করে আপনি একদিন বিশ্ব ✌ করতে পারবেন।
আমার এ-ই লেখাটা পড়ে কোন মেয়ে বা নারী হয়ত মনে করতে পারে আমি মেয়ে বা নারী বিরোধী। অবশ্য না আমি মেয়ে ও নারী জাতিতে অসম্ভব সন্মান ও শ্রদ্ধা করি।
হে তরুণ ভাই ধন্যবাদ, থামুন ভাবুন এবং আপনার সুন্দর জীবনকে উপভোগ করুন।
মনে রাখবেন, দিন শেষে তোমার মা বাবা ও পরিবার পরিজনই আপন হয়।
আমার লেখার কোন কথা ভুল হয়ে থাকলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।
লেখকঃ কলামিস্ট ও সমাজকর্মী

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট