1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. chattogramerkhobor@gmail.com : Admin Admin : Admin Admin
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বাংলাদেশ ঐক্য পার্টি’র তৃতীয় বর্ষে পদার্পণ ও দেশ নিয়ে দলটির ভাবনা চট্টগ্রাম একাডেমির পরিচালনা পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সবুর’র কবরে তসলিম উদ্দিন রানার শ্রদ্ধা নিবেদন  খাগড়াছড়ির তিন সাংবাদিকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যানের মামলা কবি মোঃ নেছার’র ‘পরাণ’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন জমকালো আয়োজনে শেষ হলো ব্যাচ ৯৪ বিডি’র ফ্রেন্ডস ফেস্টিভ্যাল ২০২৩ বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দীন। আনোয়ারার শিব ঠাকুর ও শীতলা মায়ের মন্দিরের বাৎসরিক মহোৎসব সম্পন্ন পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বনভোজন দৈনিক সকালের সময়ের প্রীতি সম্মিলনী

ইইউ প্রতিনিধি দলের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী

  • সময় সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
  • ১০৩ পঠিত

আব্দুল সাত্তার, চট্টগ্রামঃ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন আন্তরিকভাবে একই চিন্তা চেতনা ও সাদৃশ্যের উপর নিজেদের দৃঢ় সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। বিশ্বকে এগিয়ে নিতে হলে সমঝোতার বিকল্প নেই। বাংলাদেশ কোন দেশের নেতিবাচক উদ্দ্যেশ্য সাধনে নিজেদের অন্তর্ভূক্ত করে না। বাংলাদেশ সকলের সাথে সুন্দর ও স্বাভাবিক সম্পর্ক বজায় রাখতে চায়। তিনি বলেন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশের অন্যতম বাণিজ্যিক অংশীদার। এই অংশীদারীত্বের মাধ্যমে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্য, বেসরকারী খাতে উন্নয়ন, খাদ্য নিরাপত্তা, পরিবেশ এবং জলবাযু পরিবর্তনের হুমকি মোকাবেলায় সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। আজ সোমবার সকালে সিটি মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরীর সাথে নগর ভবনের কনফারেন্স কক্ষে ইউরোপিউয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলের সাথে সাক্ষাতকালে তিনি একথা বলেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের জিএসপি সুবিধা অব্যাহত রাখার মধ্য দিয়ে মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নত দেশে উপনীত হতে সহযোগিতা করবে। মেয়র রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে শান্তিপূর্ণ ভাবে রোহিঙ্গা পুর্নবাসনে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলে আশা করেন। তিনি বাংলাদেশের বিশাল এই জনগোষ্ঠিকে প্রযুক্তিগত জ্ঞানে সমৃদ্ধ করতে প্রতিনিধি দলের সহযোগিতা প্রত্যশা করেন।
মেয়র আরো বলেন, প্রাচ্যের রাণী খ্যাত পাহাড়, সাগর, নদী বেষ্টিত বন্দর নগরী চট্টগ্রাম অপূর্ব সুন্দর একটি শহর। নগরীর পর্যটন খাতে বিনিয়োগের আহŸান জানান এবং এর সুফল পাওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি নগরীর সবুজয়ান, মৎস্য, স্বাস্থ্য, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও ডিজিটাল ট্রাফিক সিষ্টেম চালুর বিষয়ে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলের সহযোগিতার অনুরোধ জানান। প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন চট্টগ্রাম নগর দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একটি বাণিজিক হাব, এর সুযোগ-সুবিধা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখানে অর্থনৈতিক জোন গড়ে উঠেছে বিধায় ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এখানকার অবকঠামো নির্মাণেও বিনিয়োগ করতে পারে। এছাড়াও এখানে আন্তর্জাতিক মানের একটি হাসপাতাল গড়ে তোলার ব্যাপারে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সহয়োগিতার আশা প্রকাশ করেন।
ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের রাষ্টদুত ও প্রতিনিধিদলের প্রধান চালর্স হুইটলি বলেন, বাংলাদেশ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অন্যতম বন্ধু। একসাথে সমঝোতার মাধ্যমে কাজ করার জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন সকল দেশের জন্য নিজেদের দ্বার উম্মুক্ত রেখেছে। বাংলাদেশ আমাদের অন্যতম বাণিজ্যক অংশিদার যা দেশের মোট বাণিজ্যের ২৪ শতাংশ। তিনি বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট হিসেবে রূপান্তরিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশকে বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে নিজেদের সক্ষমতা আরো বাড়াতে হবে। যোগাযোগ ও পরিবেশ বান্ধব উন্নয়ন, রপ্তানি পন্যের বহুমুখী করণ ও সার্ভিস সেক্টরের বিভিন্ন সম্ভবনাকে কাজে লাগানোর উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি চট্টগ্রাম নগরীর সৌন্দর্য্যরে মুগ্ধতা প্রকাশ করে জানান এখানে সমুদ্র বন্দর অবস্থানের কারণে বাণিজ্যিক সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি পর্যটন শিল্প বিকাশেরও যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। এ বিষয়ে ইউনিয়ন সার্বিক সহযোগিতা করতে আগ্রহী। তিনি আরো বলেন, গত দশকে বাংলাদেশের উন্নয়ন লক্ষণীয়। উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রচুর সম্ভবনা রয়েছে। পোষাক শিল্প, মৎস্য, জনশক্তি রপ্তানি, শিল্পাঅঞ্চলসহ বহু সেক্টরের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ রয়েছে।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলম। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কার্যক্রমের প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সচিব খালেদ মাহমুদ। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন নেদারল্যান্ডের রাষ্টদুত অ্যান জেরার্ড ভ্যান লিউয়েন, সুইডেনের রাষ্টদুত মিস আলোকজান্দ্রা বার্গ ভনলিন্ডে, লিথুনিয়া রাষ্টদৃত জুলিয়াস, প্রানেভিসিয়াস, ইতালি দুতাবাসে উপ-প্রধান মি. মাতিয়া ভেন্টুরা, সুইডেন দুতাবাসের প্রধান সচিব মি. আনা সোয়ান্তেসন, নতুন দিল্লীস্থ ফিনল্যান্ডের কাউন্সিলর মি. কিমমো সিরা, বাংলাদেশস্থ ইউউ প্রশাসনিক প্রধান মি. আন্দ্রেয়াস হিউ র্বাগার, সংযুক্ত কর্মকর্তা ফ্লোরিন বুজাতু মি. আনমারিয়া হারলিয়া, বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক উপদেষ্টা মি. তৌহিদ ফিরোজ, প্রোগ্রাম ম্যানেজার মিসেস লায়না বানু জেসমিন, জুঁই চাকমা, প্রটৌকল অফিসার মিসেস তামান্না হাসান, চট্টগ্রাম সিটি (চলমান-২) কর্পোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফুন নাহার, প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, অতি.প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা হুমায়ন কবির চৌধুরী।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট