1. news@dainikchattogramerkhabor.com : Admin Admin : Admin Admin
  2. info@dainikchattogramerkhabor.com : admin :
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
হামলাকারী ইউপি সদস্যকে গ্রেফতার করতে সাংবাদিকদের আল্টিমেটাম, দায়িত্বে অবহেলা করলেই কঠোর আন্দোলন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশনের মানবিক উপহার বিতরণ “বাবা” – মোহাম্মদ আব্দুল হাকীম (খাজা হাবীব) সুখী, সমৃদ্ধ, উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের অঙ্গীকার নিয়ে আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের সাত লাখ সাতানব্বই হাজার কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট। সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ইউপি সদস্য কর্তৃক সাংবাদিক পরিবারের উপর হামলা পূর্ব ভাটিখাইন শ্রী শ্রী জ্বালাকুমারী মাতৃ-মন্দির ও শিব মন্দির পরিচালনা পরিষদ ২০২৪-২০২৭ এর উদ্যোগে সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত। পটিয়ায় ঈদুল আযহা উপলক্ষে এপেক্স ক্লাবের ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরন। “বিদায় হজ্জের ভাষণ”  মোহাম্মদ আব্দুল হাকিম (খাজা হাবীব ) কোরবানি প্রতিযোগিতা মূলক নয়; আত্মত্যাগের – মোহাম্মদ আলী ৫০ লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদসহ এক মাদক ব্যবসায়ী ইপিজেড থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার

চন্দনাইশে ভিটা বাড়ীর ভাগভাটোয়ারা নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা

  • সময় শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ২২২ পঠিত

পলাশ সেন, মহানগর প্রতিনিধি:

চন্দনাইশে বরকল পাঠানদন্ডী মজু চৌকিদার বাড়ী এলাকায় পারিবারিক বাড়ী ভিটের ভাগভাটোয়ারা নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা বিরাজ করছে। ফলে যে কোন মুর্হুতে হতে পারে বড় ধরণের দূর্ঘটনা। গত ২৫ সেপ্টেম্বর এক সংঘর্ষের আহত হওয়ার ঘটনায় হাবিবুল ইসলাম হৃদয় বাদী হয়ে ৩জনের নাম উল্লেখসহ ১০/১২জনকে অজ্ঞাতনামা করে চন্দনাইশ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।
দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হাবিবুর রহমান ও তার প্রতিপক্ষ মোঃ মাঈন উদ্দীনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ী ভিটের ভাগভাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি প্রতিপক্ষের লোকজন হাবিবুর রহমানে ঘর-বাড়ী ভাংচুর ও উচ্ছেদ করার চেষ্টাসহ বসতঘরের টিন খোলে পেলে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে বাড়ীর টিউবলের পাশে ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। এসময় প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের লোকজন লোহার রড,লাটি-সোটা ও কিল,ঘুষি মেরে হাবিবুর রহমান (৩৭) ও তার মা সাইরা খাতুন (৭৫) আহত করে। তাদের সৌরচিৎকারে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চন্দনাইশ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এদিকে চন্দনাইশ থানার উক্ত অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা এসআই অজয় বলেন, উভয়পক্ষকে থানায় ডাকা হলেও বৈঠকে কেউ আসেনি। তবে বাদী ফোন করে জানিয়েছেন তারা মিমাংশা করে পেলেছেন।
অন্যদিকে অভিযোগের বাদী বলেন, উক্ত ঘটনায় থানায় অভিযোগ করলেও উক্ত তদন্তকারী কর্মকর্তা বিবাদীর পক্ষ নিয়ে কালক্ষেপন করে মিমাংশার বৈঠকে বসেননি। ফলে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা বিরাজ করছে।
উক্ত ঘটনার বিবাদী মাঈন উদ্দীন সামান্য তুচ্ছ ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, স্থানীয়ভাবে উভয়পক্ষের মাধ্যমে মিমাংসার করা হয়েছে। তবে তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
ওয়েবসাইট ডিজাইন: ইয়োলো হোস্ট